Home / এক্সক্লুসিভ / শেয়ার কেনা-বেচাতে হস্তক্ষেপ করছে বিএসইসি!

শেয়ার কেনা-বেচাতে হস্তক্ষেপ করছে বিএসইসি!

ডেইলি শেয়ারবাজার রিপোর্ট: কোন সিকিউরিটিজ হাউজ বা মার্চেন্ট ব্যাংক থেকে শেয়ার কেনা-বেচায় কোন ধরণের কারসাজি হয় কিনা তা মনিটরিং করে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। কিন্তু এই মনিটরিংয়ের পাশাপাশি সিকিউরিটিজ হাউজ বা মার্চেন্ট ব্যাংকগুলোর শেয়ার ব্যবসাতেও হস্তক্ষেপ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অনেক হাউজের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা।

তাদের মতে, কোন বিনিয়োগকারী কি পরিমাণ শেয়ার কিনবে বা বিক্রি করবে তা একান্তই তার ব্যক্তিগত ব্যাপার। কিন্তু বড় কোন শেয়ার কিনলে বা বিক্রি করলে কমিশন থেকে সঙ্গে সঙ্গে ফোন দিয়ে জবাব চাইছে। বিষয়টি এমন যে কিছু বলতেও পারি না, সইতেও পারি না। শেয়ার কেনা-বেচার ক্ষেত্রে বিএসইসির এরকম অযাচিত হস্তক্ষেপ ক্ষমতার অপব্যবহার বলে মনে করেন তারা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একটি মার্চেন্ট ব্যাংকের চীফ এক্সিকিউটিভ অফিসার (সিইও) ডেইলি শেয়ারবাজার ডটকমকে জানান, আমাদের একজন বড় বিনিয়োগকারী যার পোর্টফোলিও কোটি টাকার ওপরে। দীর্ঘদিন শেয়ারবাজারের অবস্থা নাজুক থাকায় তিনি অনেক লোকসানে ছিলেন। কিন্তু তারপরেও হাতে থাকা শেয়ার বিক্রি না করে ধৈর্য্য ধরে ছিলেন। বর্তমান কমিশন দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে বাজার ভালো হওয়ায় তার পোর্টফোলিও নেতিবাচক থেকে ইতিবাচক হতে থাকে। বর্তমানে তিনি মুনাফাতেও রয়েছেন। স্বাভাবিকভাবেই দীর্ঘদিন লোকসানে আটকে থাকা ওই বিনিয়োগকারী মুনাফা বের করার জন্য শেয়ার বিক্রি করবেন। কিন্তু যখনই শেয়ার সেল অর্ডারে বসানো হয় তখনই কমিশন থেকে ফোন করে জানতে চায় কেন শেয়ার বিক্রি করা হচ্ছে। এমনকি সেল অর্ডার উঠিতে নিতেও বলা হয়। এখন কমিশনের বিপক্ষে কিছু বলাও যাবে না; মুখ বুঝে সহ্য করে যেতে হবে।

বাজারের পরিচিত মুখ এক সিকিউরিটিজ হাউজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এ ব্যাপারে বলেন, শুধু কমিশনই নয় শেয়ার কেনা-বেচার খবর সিডিবিএলের মাধ্যমে এখন অনেকেই জানে। আমি কোন শেয়ারে বিনিয়োগ করলে কিছুক্ষণ পরেই ফোন চলে আসে আর জানতে চায় কেন শেয়ার কিনলাম, কোন তথ্য আছে কিনা। এরকম একটি অসহনীয় পর্যায়ে বর্তমানে ব্যবসা করতে হচ্ছে। এভাবে বাজার একটি নির্দিষ্ট সিন্ডিকেটের কবলে রয়েছে বলে জানান তিনি।

এ ব্যাপারে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসির চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম জানিয়েছেন, ‘বিএসইসি বা স্টক এক্সচেঞ্জ কারও পোর্টফোলিও ম্যানেজ করে না। কে কোন শেয়ার কিনবে বা বিক্রি করবে, ব্যক্তিগত ব্যাপার। শেয়ারবাজারে নিয়ন্ত্রক সংস্থার মনিটরিং বা সুপারভিশনে কিছু ভুল থাকতে পারে। তবে কোনো ধরণের কারসাজি বা অপরাধ সংঘটিত হলে, তার দায়িত্ব আমাদের। কিন্তু কারো ব্যক্তিগত পোর্টফোলিও ম্যানেজ করার দায়িত্ব বিএসইসির নয়।”

 

ডেইলি শেয়ারবাজার ডটকম/মাজ./নি

Check Also

৭ কোম্পানির শেয়ারে কারসাজির আলামত স্পষ্ট

ডেইলি শেয়ারবাজার রিপোর্ট: সপ্তাহজুড়ে অধিকাংশ মৌলভিত্তির কোম্পানির শেয়ারের দর পতন হয়েছে। কিন্তু পতনের বাজারেও লাগামহীন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *