Home / আজকের সংবাদ / বাংলাদেশকে উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করতে পুঁজিবাজার গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে

বাংলাদেশকে উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করতে পুঁজিবাজার গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে

ডেইলি শেয়ারবাজার রিপোর্ট: বিএসইসির কমিশনার মোঃ আব্দুল হালিম বলেছেন, বর্তমানে জিডিপিতে পুঁজিবাজারের অবদান প্রায় ২০ শতাংশ। যা পার্শ্ববর্তী দেশগুলোর তুলনায় অনেক কম। কমিশন ২০২৪ সালের মধ্যে এটিকে ৫০ শতাংশে উন্নীত করতে চায়। ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করার ক্ষেত্রে পুঁজিবাজার গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে বলে আমরা আশা করি।
আজ ২৩ জুন ডিএসই ট্রেনিং একাডেমিতে ‘ডিজিটাল সাবমিশন অ্যান্ড ডেসিমিনেশন প্লাটফর্ম অব ডিএসই’ শীর্ষক এক প্রশিক্ষণ কর্মশালার সমাপনী দিনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
বিএসইসির কমিশনার মোঃ আব্দুল হালিম আরো বলেন, কর্মক্ষেত্রের বিষয়গুলো বাস্তবে রূপ দেয়ার জন্য প্রয়োজন প্রশিক্ষণ। একটি সময় সব ধরনের কাজ ম্যানুয়াল ছিল। বর্তমান যা ভাবাই যায় না। প্রযুক্তির ক্রমবিকাশ আমাদের কর্মকাণ্ডকে সহজ করেছে। এই সফটওয়্যারও আমাদের কাজকে স্বচ্ছ ও কার্যকরী করে দিবে।
অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি বিএসইসি’র নির্বাহী পরিচালক মোঃ সাইফুর রহমান বলেন, ডিএসই’র ডিজিটাল সাবমিশন অ্যান্ড ডেসিমিশন প্লাটফর্ম একটি স্বপ্ন ছিল। আর এই স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য ডিএসই’র দক্ষ কর্মী বাহিনী অক্লান্ত পরিশ্রম করেছে। এই সফটওয়্যারের মাধ্যমে ডেটা ইনপুট ও সাবমিশন অতি সহজে ও কম সময়ে করা যাবে। আর এর ফলে পুঁজিবাজারে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা বৃদ্ধি পাবে।
অনুষ্ঠানে প্রারম্ভিক বক্তব্য প্রদান করেন ডিএসই’র প্রধান প্রযুক্তি কর্মকর্তা ও ঢীম লিডার মোঃ জিয়াউল করিম এবং ধন্যবাদ বক্তব্য প্রদান করেন ডিএসই’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক (ইনচার্জ) আবদুল মতিন পাটওয়ারী, এফসিএমএ। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন ডিএসই’র মহাব্যবস্থাপক মোঃ ছামিউল ইসলাম, উপ-মহাব্যবস্থাপক ও সিআরও (চলতি দায়িত্ব) মো: আব্দুল লতিফ এবং সিনিয়র ম্যানেজার মুহাম্মদ রনি ইসলাম।
উক্ত প্রশিক্ষণ কর্মশালায় বিভিন্ন টেকনিক্যাল বিষয়ে আলোচনা করেন মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম, যুগ্ম পরিচালক, বিএসইসি; সাইয়িদ মাহমুদ জুবায়ের, উপ-মহাব্যবস্থাপক, মার্কেট অপারেশন; মোঃ রবিউল ইসলাম, সিনিয়র ম্যানেজার, লিস্টিং অ্যাফেয়ার্স ডিপার্টমেন্ট এবং নাজমুস সাকিব, সফটওয়্যার আর্কিটেক্ট, ডিএসই।
উল্লেখ্য, ডিএসইর আইসিটি বিভাগ নিজস্ব উদ্যোগে ২০১৯ সালে অক্টোবর মাসে এই সফটওয়্যারের নির্মাণ কাজ শুরু করে।পরবর্তীতে কোভিড মহামারীর কারণে ২২ জুন ২০২০ তারিখে বিএসইসি এক নির্দেশনার পর উক্ত সফটওয়্যারটির নির্মাণ আরও গতি পায় । পরবর্তীতে ডিএসই’র প্রধান প্রযুক্তি কর্মকর্তা মোঃ জিয়াউল করিম এর নেতৃত্বে মার্কেট অপারেশন ডিপার্টমেন্টের উপ-মহাব্যবস্থাপক সাইয়িদ মাহমুদ জুবায়ের, লিস্টিং অ্যাফেয়ার্স ডিপার্টমেন্টের সিনিয়র ম্যানেজার মোঃ রবিউল ইসলাম ও ডিএসই’র সফটওয়্যার আর্কিটেক্ট নাজমুস সাকিব অক্লান্ত পরিশ্রম করে সফটওয়্যারটির প্রাথমিক কাজ সম্পূর্ণ করেন। এই সফটওয়্যারটি ডিএসই’র নিজস্ব কর্মীবাহিনী তৈরী করার ফলে ব্যবহারকারীর চাহিদা অনুযায়ী যেকোন সময়ে প্রয়োজনীয় পরিবর্তন ও পরিবর্ধন করা যাবে। এ সফটওয়্যারটি নিজস্বভাবে তৈরী করার ফলে সফটওয়্যার ক্রয়, রক্ষণাবেক্ষণ বাবদ অর্থ ও সময় সাশ্রয় হয়। একইসাথে দেশে এবং বিদেশের স্টক এক্সচেঞ্জের কাছে এ সফটওয়্যারটি বিক্রয় করে অর্থ আয় করার সম্ভাবনা সৃষ্টি হয়েছে। আরও উল্লেখ্য, ০৯ জুন ২০২১ তারিখে প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্বোধনী দিনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)-এর কমিশনার ড. শেখ শামসুদ্দিন আহমেদ।
ডেইলি শেয়ারবাজার ডটকম/নি.

Check Also

৫ দিনের ছুটিতে পুঁজিবাজার

ডেইলি শেয়ারবাজার রিপোর্ট: পবিত্র ঈদ-উল-আযহা উপলক্ষ্যে আগামীকাল থেকে ৫ দিনের ছুটিতে যাচ্ছে দেশের পুঁজিবাজার। আগামীকাল …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *